মেয়েদের ঋতুস্রাব দেরিতে হওয়ার কারন কি






মেয়েদের ঋতুস্রাব অনেক সময় ঠিক সময়ে না হয়ে দেরিতে হয়। এই ঋতুস্রাব দেরিতে হলে মেয়েদের এ নিয়ে দুশ্চিন্তার মধ্যে পড়তে হয় । আসলে ঋতুচক্রের ২১দিন আগে ঋতুস্রাব হলে অথবা ৩৫ দিনের পরে হলে বিষয়টি নিয়ে ভাবা উচিত। এমন কিছু কারণ রয়েছে, যার কারনে ঋতুস্রাব দেরিতে ঘটতে পারে। তাই আজকে এ নিয়ে আলোচনা করছি আপনাদের সামনে। বিষয়গুলো সকলের জেনে রাখা ভালো।

১. রুটিন পরিবর্তন :
মেয়েদের দৈনিক রুটিনে পরিবর্তন এলে শরীরের হরমোনগুলো একটু দ্বিধার মধ্যে পড়ে যায়, ঠিকমত কাজ করতে পারে না। ফলে ঋতুস্রাব দেরিতে হতে পারে।

২. মানসিক চাপ :
আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের মানসিক চাপের মধ্যে পড়ি, মেয়েদের ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম নয়। যেমন : সাংসারিক কলহ, আর্থিক সংকট, সম্পর্কে বিচ্ছেদ, অফিসে বসের ঝাড়ি ইত্যাদি। এতে প্রচুর মানসিক চাপে থাকেন মেয়েরা। ফলে কখনো কখনো অতিরিক্ত মানসিক চাপের কারণেও ঋতুস্রাব দেরিতে হয়। আবার মানসিক চাপ কমালে এ সমস্যার সমাধান এমনি এমনি হয়ে যায়।

৩. অসুস্থতা :
খুব গুরুতর কোনো অসুস্থতা ঋতুস্রাব দেরিতে ঘটানোর একটি অন্যতম কারণ। হয়তো শরীর এ সময় অনেক ব্যস্ত থাকে ভাইরাস বা কোনো ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করতে। আর এতেই প্রভাবিত হচ্ছে ঋতুস্রাবের চক্রটি।

৪. হরমোনের ভারসাম্যহীনতা :
মেয়েদের মাসিক স্রাবের চক্রটি হরমোন দ্বাড়া নিয়ন্ত্রিত। কিন্তু অনেক সময় হরমোন তৈরিতে হ্রাস বৃদ্ধি ঘটে থাকে। ফলে স্বাভাবিক ভারসাম্য হারিয়ে যায়। এই হরমোনের ভারসাম্যহীনতার কারণে ঋতুস্রাব দেরিতে হয়। যদি হরমোনের ভারসাম্যহীনতার কারণে ঋতুস্রাব দেরিতে হয়, তবে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

৫. ভ্রমণ :
আমাদের এই সমাজে বাস করতে হলে জীবীকার প্রয়োজন। আর জীবীকার তাগিদে ভ্রমন করতেই হয়। কিন্তু মেয়েরা কি জানে? দীর্ঘ ভ্রমণ অনেক সময় ঋতুচক্রকে ব্যাহত করে। দীর্ঘ ফ্লাইট, বাস ভ্রমন, ট্রেন ভ্রমন, কিংবা অন্য কোন উপায়ে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গার সময়ের ব্যবধান অনেক সময় ঋতুস্রাব দেরিতে ঘটায়।

৬. বেশি ওজন :
আজকাল মেয়েদের একটা কমন সমস্যা হল মেদ বৃদ্ধি বা স্থুলতা। একটু বয়স হলেই ওজন বেড়ে যায়। আর এই বেশি ওজনের কারণে মেয়েদের ঋতুস্রাব দেরিতে হতে পারে। তাই এ রকম সমস্যা হলে ওজন কমানো অতি জরুরি।

৭. ওষুধ :
কিছু কিছু ওষুধ আছে যেগুলো মেয়েদের ঋতুস্রাবে প্রভাব ফেলে। যেমন : বিষণ্ণতা, উদ্বেগ, ডিপ্রেশন, বাইপোলার মুড ডিজঅর্ডার ইত্যাদির ওষুধ ঋতুস্রাব দেরিতে ঘটায়।

৮. অলস জীবন যাপন :
মেয়েরা খুব আরাম প্রিয় হয়ে থাকে। অনেকেই পড়াশুনার পাশাপাশি খাওয়া এবং ঘুম ছাড়া কোন কাজকর্ম করে না। এ ধরনের আলসে জীবন যাপনের কারনে ঋতুস্রাব দেরিতে হতে পারে।



কিভাবে Blogger এ 404 page কে homepage এ redirect করবেন

আজকে শেয়ার করছি এই দরকারী পোস্ট টি । দেখুন আপনার কাজে লাগে কি না ?

প্রথমে আপনার ব্লগে লগইন করুন । এবার ড্যাশবোর্ড  এর Settings থেকে  Search preferences ক্লিক করুন। নিচে ছবি দেখুন ।



how to redirect 404 error (page not found) to homepage in blogger
 এবার Custom Page Not Found এর Edit ক্লিক করুন এবং বক্সে নিচের কোড পেস্ট করে Save change ক্লিক করুন ।


 এখানে কোডঃ

<h1>Page Not Found!</h1>
<br><b>We're sorry but we could not find the page you are looking for.
This may happen if you have entered site URL incorrectly or this page doesn't exist anymore.</b>
<script type = "text/javascript">
BSPNF_redirect = setTimeout(function() {
location.pathname= "/"
}, 5000);
</script>


ব্যাস কাজ শেষ । এখন থেকে ৪০৪ ইরোর পেজ হোম পেজে রিডাইরেক্ট হবে । তবে আপনি ইচ্ছা করলে অন্য যেকোন পেজে তা পাঠাতে পারবেন । এজন্য pathname= "/ এখানে লিংক দিন" ।  তাহলে কাজ হবে । তো আজকের মত বিদায় ।



কিভাবে Blogger ব্লগে Label বা Category যুক্ত করবেন






আজকে দেখাব কিভাবে আপনার ব্লগকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলবেন। আপনার ব্লগে যুক্ত করে নিন ক্যাটেগরি বা লেবেল নামক গ্যাজেট। এতে আপনার ব্লগের সৌন্দর্য আরও বাড়বে। আর এই ক্যাটাগরি যুক্ত করে আপনি কোন বিষয়ে বা বিভাগে কতটি পোস্ট করেছেন তা ভিজিটরকে দেখাতে পারবেন। এর জন্য যা করতে হবে :


* প্রথমে আপনার ব্লগার সাইটে সাইন ইন করুন।

* এরপর ড্যাশবোর্ড থেকে Layout এ ক্লিক করুন।

* এবার সাইডবারের যেখানে ক্যাটেগরি যুক্ত করবেন সেখানে একটি গ্যাজেট যুক্ত করুন বা Add a Gadget লেখায় ক্লিক করুন।

* তাহলে নতুন একটি উইন্ডো আসবে এবং ভাল করে দেখুন, Label নামক গ্যাজেট দেখতে পাবেন। এর ডানপাশে যুক্ত করুন বা + বাটনে ক্লিক করুন।


ব্যাস আপনার কাজ শেষ। এবার টেমপ্লেট সংরক্ষন বা Save Templet এ ক্লিক করে সেভ করুন।

এখন থেকে প্রতিবার পোস্ট পাবলিশ করার সময় ডান পাশে পোস্ট সেটিং অপশন থেকে Label ক্লিক করুন। আর আপনার পোস্টের ক্যাটেগরি নাম দিন। তারপর Done ক্লিক করুন। তাহলে পোস্টটি ক্যাটেগরিতে যুক্ত হবে এবং পরবর্তীতে যে কেউ তা দেখতে পাবে।