নারীদের যৌন মিলনে ব্যাথার কারন ও প্রতিকার






সাধারণত প্রথম মিলনের সময় মেয়েদের ভয়, লজ্জা, সংকোচ প্রভৃতি নানা কারনে এই রোগ হয় । তার ফলে বিভিন্ন পেশী ও পেলভিক ফ্লোর আপনা থেকেই সংকুচিত হয়। আবার অনেক সময় যোনীর ছিদ্র ছোট থাকলেও যৌন মিলনে ব্যথা হতে পারে । যাই হোক আজকের আয়োজনে থাকছে যৌন মিলনে ব্যথা ও তার প্রতিকার নিয়ে আলোচনা -

কারন:
১) মানসিক কারনে ভয়, লজ্জা, সংকোচ প্রভৃতি থেকে পেশীর সংকোচন এবং তার জন্য এই অবস্থা দেখা দিতে পারে ।

২) অনেকের হাইমেনের মাঝে ছিদ্র ছোট থাকে বলে মিলনে ব্যথা হতে পারে।

৩) অনেকের হাইমেনে বা যোনীতে ইনফেকশন থাকতে পারে, আর এ জন্য ব্যথা হতে পারে ।

৪) মিলনের আগে যথেষ্ট মাত্রায় উত্তেজিত না হলে যোনি থেকে কাম রস ক্ষরণ ঠিক মত হয়না। একারনে ব্যথা হতে পারে।

জেনে নিন বাংলাদেশী এড নেটওয়ার্ক সাইট এর তালিকা






কেমন আছেন আপনারা সবাই ? আজ আমি আপনাদের ব্লগ থেকে আয় করার উপায়ের কথা বলবো । আমরা যারা ব্লগ থেকে আয় করি তারা অবশ্যই কোন না কোন এড নেটওয়ার্ক এর সাথে জরিত। এড নেটওয়ার্ক কি টা অবশ্যই জানেন।

আমি কথা বলবো আজ বাংলাদেশী এডনেটওয়ার্ক সাইট নিয়ে । আমাদের দেশে ও বেশ কয়েকটি এড নেটওয়ার্ক সাইট চালু হয়েছে এবং মোটামুটি পেমেন্ট দিচ্ছে, তাও আবার বিকাশে কিংবা মোবাইল ফ্লেক্সিলোডে। কাজেই যাদের একটা ব্লগ বা ওয়েবসাইট আছে তারা অনায়াসেই বাড়তি কিছু ইনকাম করতে পারেন। আর এসব সাইট ব্যানার এড, পপ এড, ওয়ার্ড এড, রেফারেল ইত্যাদির মাধ্যমে আয়ের ব্যবস্থা রেখেছে।


কি দেখে বুঝবেন একজন নারী গর্ভবতী







উর্বর সময়ে বা বিপদজনক সময়ে কিংবা হিট পিরিয়ড যাই বলেন না কেন, এসময় কোনও সক্ষম মহিলার ডিম্বাণু এবং কোনও সক্ষম পুরুষের শুক্রাণু মিলিত হলে ভ্রূণের সঞ্চার হয় অর্থাৎ উক্ত মহিলা গর্ভবতী হয়ে পড়েন ৷ এরপর ভ্রূণ জরায়ুতে ক্রমেই বড় হতে থাকে, এই অবস্থাকে আমরা গর্ভাবস্থা বলি ৷

আমরা অনেকেই জানি একটি সুস্থ বাচ্চা জণ্ম দেয়ার জন্য গর্ভাবস্থায় একজন গর্ভবতী মহিলাকে বিভিন্ন ধরনের সাবধানতা অবলম্বন করতে হয়৷ আর এসব সাবধানতা অবলম্বন না করলে বাচ্চা এবং মা দুজনেরই বিপদ। তাই আগে থেকে সাবধান হতে গেলে আমাদের প্রত্যেকের জানা উচিৎ গর্ভের প্রাথমিক লক্ষণ সমূহ কি কি? তাই আজকের আয়োজন গর্ভের লক্ষণ -

কিভাবে ব্লগে মাউসের রাইট বাটন ডিজেবল করবেন






কেমন আছেন আপনারা সবাই? নিশ্চয় ভাল আছেন। আজকে আপনাদের সামনে হাজির হলাম নতুন একটা বিষয় নিয়ে। আর সেটা হচ্ছে কিভাবে আপনার ব্লগার ব্লগের পোস্ট কপি করা থেকে রক্ষা করবেন। কারন অনেকেই লেখা কপি করে নিজের ব্লগে পেস্ট করে নিজের নামে চালিয়ে দেয়। আর এতে আপনার কষ্ট, পরিশ্রম সব বৃথা হয়ে যায়। তাই আজকের পোস্ট ভিজিটরের মাউসের রাইট বাটন ডিজেবল করে আপনার মূল্যবান পোস্ট কপির হাত থেকে রক্ষা করার উপায়। আর এর জন্য তেমন কোন কোডের প্রয়োজন নেই। এমনকি সেরকম কোডিং জ্ঞান না থাকলেও হবে। একবারে নুতন ব্লগার হলেও এই কোড ব্যবহার করে যে কোন ভিজিটরের মাউস এর রাইট (ডান) বাটন অকেজো করে দিতে পারবেন। ফলে আপনার পোস্ট সিলেক্ট করে রাইট বাটন ক্লিক করে কপি করতে পারবে না।