বিজয়ের মাস

বজ্রপাতের সময় ওয়াই-ফাই সংযোগ বন্ধ রাখবেন কি না







আমাদের আধুনিক যুগে জীবনযাপন করতে নিজেকে মানিয়ে নিতে হচ্ছে প্রকৃতির সঙ্গে। এখন যেহেতু সর্বত্র ছোয়া লেগেছে প্রযুক্তির ছোয়া তাই জীবনযাপনে ও অপরিহার্য হয়ে উঠেছে আধুনিক প্রযুক্তি ৷ আমাদের নিত্য দিনের সাথী হয়েছে মোবাইল ফোন, টিভি, ইন্টারনেট সংযোগ ৷ তাই খেয়াল রাখতে হচ্ছে সেদিকেও।


অনেকের মনেই প্রশ্ন থাকে, বজ্রপাতের সময় ওয়াই-ফাই সংযোগ কি বন্ধ রাখা প্রয়োজন? নাকি চালু রাখলেও ক্ষতি নেই? কেউ কেউ অভিযোগ করেন, ঝড়বৃষ্টির কারণে পুড়ে গেছে তাঁদের রাউটার। তাহলে কোন পরামর্শ মেনে চলা ভালো?
ওয়াই-ফাই একধরনের তারহীন ইন্টারনেট সংযোগ। এটি কাজ করে রাউটারের সাহায্যে। এই রাউটার চলে বিদ্যুৎ-সংযোগে। অনেকেই ধারণা করেন, বজ্রপাতের সময় যেহেতু রাউটার ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, তাই ওয়াই-ফাই সংযুক্ত যন্ত্রগুলোও হয়তো ক্ষতির মুখে পড়তে পারে। প্রযুক্তিবিদদের বড় অংশ বলছে, বজ্রপাতের ফলে কেবল রাউটার নষ্ট হতে পারে। কিন্তু এর ফলে ওয়াই-ফাই সংযুক্ত ডিভাইসের কোনো ক্ষতির আশঙ্কা নেই। নষ্ট হলে রাউটারই নষ্ট হবে, কিন্তু তার প্রভাব পড়বে ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কে সংযুক্ত থাকা মুঠোফোন বা ল্যাপটপে পড়বে না।

* বিদ্যুৎ-সংযোগে বজ্রপাত ঘটলে আমাদের ডিভাইসগুলো অতিরিক্ত চার্জ গ্রহণ করে অকেজো হয়ে যেতে পারে। এ জন্যই ইউপিএস বা স্ট্যাবিলাইজারের মতো যন্ত্রগুলোর মাধ্যমে আমরা যন্ত্রগুলো সুরক্ষিত রাখি।
* বজ্রপাতের সময় যে ডিভাইসটি সেই মুহূর্তে বিদ্যুৎ-সংযোগকৃত অবস্থায় থাকে না, তাতে ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কাও নেই। এ কারণে বজ্রপাতের সময় রাউটার বন্ধ রাখাই ভালো। শুধু রাউটার কেন, বাকি সব বৈদ্যুতিক যন্ত্র প্লাগ থেকে খুলে রাখা নিরাপদ।
* বজ্রপাতের সময় মোবাইল ফোনে চার্জ না দেওয়াই ভালো।
* ল্যাপটপ চালাতে হলে প্লাগ থেকে খুলে নিয়ে ব্যাটারিতে চালানো নিরাপদ।
* যদি সম্ভব হয় টিভির ডিশ সংযোগও খুলে রাখুন।
* ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার দিয়ে ফ্রিজ চালানো গেলে ভালো।

বজ্রপাতের সময় যেকোনো ইলেকট্রনিক ডিভাইস সুরক্ষিত রাখতে বাসা বা অফিসের কাট-আউট বা ফেস ব্রেকার নিরাপদ রাখুন। নিয়মিত ইলেকট্রিশিয়ান ডেকে সংযোগ পরীক্ষা করিয়ে নিন।